ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

ডিটেকটিভ ডেস্ক

কয়েকটি ই-কমার্স মানুষের কাছ থেকে অনেক টাকা নিয়েছে। কীভাবে তারা তাদের কমিটমেন্ট পূরণ করবে, সেটা আমার এখন জানা নেই। কমিটমেন্ট পূরণ না করলে আইন অনুযায়ী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

১৯ সেপ্টেম্বর সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। মন্ত্রী বলেন, ‘ইভ্যালি একটা, আরও কয়েকটা (ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান) মানুষের কাছ থেকে অনেক টাকা নিয়েছে। কীভাবে তারা তাদের কমিটমেন্ট পূরণ করবে, এটা আমার এখন জানা নেই। আমরা মনে করি, তারা যে কমিটমেন্ট জনগণকে দিয়েছে, তা যদি পূরণ না করে তবে আইন অনুযায়ী আমাদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে এবং করতেই হবে।’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি আপনাদের মাধ্যমে আবেদন করছি, যারা এই ব্যাপারে লগ্নি (বিনিয়োগ) করেন, ইনভেস্ট করেন তারা আগে থেকে বুঝেশুনে করবেন।’ গ্রাহকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা প্রতারিত যাতে না হন, আপনারা নিজে চিন্তা করবেন, এই যে প্রলোভন আপনাদের দেখাচ্ছে, এটা বাস্তবসম্মত কি না, সেটা নিজেরা চিন্তা করে ইনভেস্ট করবেন।’ আমি সবাইকে এই মেসেজটা দিতে চাই, ইনভেস্ট করার আগে আপনারা বুঝে নেবেন, আপনাদের ঝুঁকি কতখানি এবং আপনারা পাবেন কীভাবে। সেটা না জেনে আপনারা ইনভেস্ট করা থেকে বিরত থাকবেন, বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠিটি অপ্রত্যাশিত

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠিটি অপ্রত্যাশিত উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘ঘটনাগুলো অপ্রত্যাশিতভাবে হয়েছে। আসলে আমারও জানা ছিল না। তথ্যমন্ত্রী মহোদয়ও বোধহয় জানতেন না কিছু। এ ঘটনা কীভাবে ঘটল, আমি বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি একটি চিঠির কথা বলেছেন। সেই চিঠির উৎপত্তিটা

কোথায়, সেটি আমি দেখেছি। আমার মনে হয়, একটা ভুল বোঝাবুঝির মাধ্যমে চিঠিটা গেছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এভাবে চিঠি দেওয়া উচিত হয়নি। এটা নিয়ে আমরা একটু দেখে নিই। কোথা থেকে কী হয়েছে, আমরা ব্যবস্থা নেব।’

২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ সোমবার বিকালে সচিবালয়ে সাংবাদিক নেতারা সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এসব কথা বলেন। স্বরাষ্টুমন্ত্রী বলেন, ‘অবশ্যই আপনাদের সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে, আপনারা কষ্ট পেয়েছেন, ব্যথা পেয়েছেন। আমরা সেই জায়গায়টায় কিছু না করতে পারলেও ভবিষ্যতে যাতে এরকম না ঘটে, সেটা আমি লক্ষ্য রাখব। আমি সবার সঙ্গে আলাপ করছি, এনএসআই, সিআইডি, এসবি, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যদের সঙ্গে আলাপ করছি। তাদের নিয়ে বসব। যাতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয়, সেগুলো আমরা দেখব। এ মুহূর্তে আপনাদের সঙ্গে আমি সম্পূর্ণ একমত চিঠিটি অপ্রত্যাশিত।’

সাক্ষাতের সময় আওয়ামীপন্থী সাংবাদিক নেতা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, মনজুরুল আহসান বুলবুল, কুদ্দুস আফ্রাদ, আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল জলিল ভূঁইয়া, ওমর ফারুক, সাজ্জাদ আলম খান তপু উপস্থিত ছিলেন।

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *