ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

 ডিটেকটিভ রিপোর্ট

বাংলাদেশ পুলিশ পরিবারের নারীদের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) বর্ণাঢ্য আয়োজনে ‘বসন্ত উৎসব-২০২১’ পালন করেছে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) ও পুনাক’র প্রধান উপদেষ্টা প্রধান অতিথি ছিলেন।

পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জার সভাপতিত্বে রাজধানীর রমনায় পুলিশ অফিসার্স মেস মিলনায়তনে শনিবার রাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয় বসন্ত উৎসব এবং আইজিপি ও পুনাক’র প্রধান উপদেষ্টাকে সম্মাননা প্রদান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পুনাক’র সহ সভানেত্রী নাসিম আমিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইজিপি বলেন, পুনাক সাম্প্রতিক সময়ে গণমানুষ বিশেষ করে নারী সমাজের কল্যাণ যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। সম্মাননার জবাবে আইজিপি পুনাক নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান।

জীশান মীর্জা বলেন, পুনাক নিজস্ব গন্ডি পেরিয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, শিশু-কিশোরদের মানসিক বিকাশে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। আগামীতেও আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এছাড়া, পুনাক আগামীতে বৃদ্ধাশ্রমে বসবাসকারী অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানোসহ অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণের চেষ্টা করবে বলেও জানান তিনি। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, পুনাক দীর্ঘ তিন দশকেরও বেশী সময় ধরে পুলিশ পরিবারের নারী সদস্যদের জন্য নানা ধরনের বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ, শিশু-কিশোরদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা আয়োজন, সমাজের দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি বৃহত্তর পরিসরে দেশের নারী সমাজের ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নে অত্যন্ত বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে আসছে।

বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে শিশুদের উদ্বুদ্ধকরণে পুনাক

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে ধারণা দিতে পুলিশ সদস্যদের সন্তানদের নিয়ে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) এক অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

১০ মার্চ, ২০২১ সকাল ১১ টায় রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে অবস্থিত পুরাতন পুনাক ভবনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জা।

এ সময়ে পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিন¤্র শ্রদ্ধা জানিয়ে পুলিশ সদস্যদের সন্তানদের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন। জাতীয় শিশু দিবসের তাৎপর্য ও শিশুদের সান্নিধ্যে জাতির পিতার সময় কাটানোর বিষয়ে তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিশুদের অবহিত করেন। সবশেষে লেখাপড়ার উপরে জোর প্রদান করতে বলেন।

এরপর মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানাতে উপস্থিত পুলিশ সদস্যের সন্তানদের রাজারবাগ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ঘুরিয়ে দেখানো হয় এবং তাদের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত বিশেষ ধারণা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শিশুদের জন্য উপভোগ্য করে তুলতে একইসাথে বনভোজনেরও আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে পুনাকের সহ-সভানেত্রী বেগম শিরিন ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদিকা বেগম ফারহানা রহমান ও কার্যনির্বাহী সদস্যসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *