ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

শামীমা বেগম পিপিএম

মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার এ প্রদীপ্ত চেতনাকে বোধে, মননে, কর্মে, প্রেরণায় ধারণ করে মুজিব জন্মশতবর্ষপূর্তীতে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করে পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার টাঙ্গাইলে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করে স্মারক গ্রন্থ “প্রতীতি” প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতীতি প্রকাশনার প্রধান পৃষ্ঠপোষক- ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার), পৃষ্ঠপোষক- কমান্ড্যান্ট (ডিআইজি) জনাব মোঃ ময়নুল ইসলাম, এনডিসি, পিটিসি টাঙ্গাইল, প্রধান সম্পাদক- যুগ্ম-কমিশনার জনাব শামীমা বেগম পিপিএম, ডিএমপি, ঢাকা।

মুজিববর্ষকে স্মৃতিময় করে রাখতে পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার টাঙ্গাইলে স্মারক গ্রন্থ “প্রতীতি” মোড়ক উন্মোচন করা হয়। মোড়ক উন্মোচনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিটিসি টাঙ্গাইলের কমান্ড্যান্ট (ডিআইজি) মোঃ ময়নুল ইসলাম, এনডিসি। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি কমান্ড্যান্ট (অতি: ডিআইজি) মোঃ মাহবুবুর রহমান, পিটিসি টাঙ্গাইল, শামীমা বেগম পিপিএম, যুগ্ম-কমিশনার, ডিএমপি, ঢাকা, পুলিশ সুপার আসমা বেগম রিটা, পুলিশ টেলিকম, রাজারবাগ, ঢাকা ও পিটিসির অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার টাঙ্গাইলে স্মারক গ্রন্থ “প্রতীতি” মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ১৯তম ডিসি কোর্সের ৮০০ এর অধিক প্রশিক্ষণার্থী এবং পিটিসির অফিসার ও স্টাফবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

গ্রন্থটির শুরুতে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সকল শহীদদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হয়, প্রথম পুলিশ সপ্তাহ এবং বার্ষিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্ েযে বক্তব্য প্রদান করেন তার কিছু অংশ তুলে ধরা হয় নিত্য অনুসরণীয় শিরোনামে, মুক্তিযুদ্ধের প্রথম প্রতিরোধ যুদ্ধ রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্ এর ইতিহাস ফুটে তোলা হয়েছে ‘‘প্রতীতি’’ স্মারক গ্রন্থের মাধ্যমে।

গ্রন্থটিতে মুখবন্ধ রচনা করেছেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক: ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার)।

পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার, টাঙ্গাইল পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি পিটিসির ঐতিহ্যময় প্রতœতাত্ত্বিক সৌন্দর্যের ইতিহাস, প্রশিক্ষণ বিষয়ক তথ্য উপাত্ত, উত্তম চর্চা সমূহ, পিটিসির নান্দনিক ও মনোরম প্রকৃতির রূপ সৌন্দর্য উপস্থাপনের প্রয়াস পেয়েছে “প্রতীতি” গ্রন্থের মাধ্যমে।

“প্রতীতি” গ্রন্থে সন্নিবেশিত হয়েছে পুলিশের ঐতিহ্যবাহী এ প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের বহুমুখী কার্যক্রম যা পুলিশের ইতিবাচক ভাবমূর্তিরই প্রতিফলন। সুবিন্যস্ত এ গ্রন্থটি পিটিসির নিত্য রোজনামচার এক শৈল্পিক রূপায়ণ।

বর্তমান আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) এর পুলিশের ইতিবাচক ইমেজ গঠনে ০৫টি নির্দেশনার উল্লেখ করা হয়েছে এ গ্রন্থে। যার মাধ্যমে প্রশিক্ষণে আগত বিভিন্ন পর্যায়ের পুলিশ সদস্যদের পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনের উদ্দীপনা জাগ্রত হবে। 

বর্তমান আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) পিটিসি টাঙ্গাইলে ২০০৬ সালে কমান্ড্যান্ট হিসাবে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে পিটিসি কো-অপারেটিভ সোসাইটি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতি মাস শেষে লভ্যাংশ হতে সদস্যগণ’কে আর্থিক সুবিধা প্রদান করা হতো। পরবর্তীতে পিটিসির সকল স্টাফগণ পিটিসি কো-অপারেটিভ সোসাইটি, টাঙ্গাইল এর সদস্য হন। তার সুদূরপ্রসারী কল্যাণমূলক চিন্তার ফসল পিটিসি কো-অপারেটিভ সোসাইটি, টাঙ্গাইল সফলতার ধারা অব্যাহত রেখে পিটিসি স্টাফদের জন্য কল্যাণমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করছে। যা এ গ্রন্থে পুলিশের কল্যাণে একটি উল্লেখযোগ্য সফল কার্যক্রম হিসেবে উদ্ধৃত করা হয়েছে।

‘প্রতীতি’ গ্রন্থটি তিনটি পর্বে বাংলা এবং ইংরেজিতে রচনা হয়েছে। প্রথম পর্ব ‘‘প্রশিক্ষণে উৎকর্ষতার প্রতিদিন’’ শিরোনামে তথ্য ও চিত্রের মাধ্যমে পিটিসির বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উপস্থাপন করা হয়েছে। দেশ ও জনগণের সেবার নিত্য ব্রতী প্রশিক্ষণার্থীদের দৃপ্ত অঙ্গীকারে জেগে ওঠে পিটিসির কর্মব্যস্ত ভোর। দেশপ্রেমে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ সংকল্প চিত্তে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নবীন প্রবীণ, পুলিশ সদস্যদের বুটের পদভারে মুখরিত হয়ে ওঠে পিটিসির প্রশিক্ষণ মাঠ। পেশাদারিত্ব ও দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে জনগণের সেবা ও ভরসার আশ্রয়স্থল হিসাবে কাজ করার উজ্জীবিত মন্ত্রে এগিয়ে চলে পুলিশ সদস্যরা।

দ্বিতীয়পর্ব ‘‘মহেড়া জমিদার বাড়ী’’ শিরোনামে জমিদারদের ঐতিহ্য, বংশক্রম এবং সুবিশাল ভবনের নানন্দিক কারুকার্যের তথ্য চিত্রের সাজানো হয়েছে। অনাদিকাল হতে অগণিত মানুষের বিচরণ এই সুন্দর পৃথিবীর বুকে। নানাবর্ণ, গোত্র, জাতি, ধর্ম, ভাষা,

সংস্কৃতির ভিন্ন ব্যঞ্জনায় মানব সভ্যতার যাত্রা কাল হতে কালান্তরে। মানুষেরা কালের সমুদ্রে বিলীন হলেও রেখে যায় তার স্মৃতি চিহ্নরেখা। বিশাল

পৃথিবীর বাঁকেবাঁকে অতীতের পথ খুঁজে বর্তমানের হাত ধরে ভবিষ্যতের পানে অবিরাম ধাবমান এই মানব জীবন।

তৃতীয় পর্ব ‘‘মায়াময় প্রকৃতির সন্ধানে’’ শিরোনামে পিটিসির টাঙ্গাইলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ছবি, কবিতা এবং তথ্যের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে। প্রাগৈতিহাসিক কালের পথ ধরে বয়ে আসা সময়ের পথে হাঁটছি আমরা। গ্রীষ্মের তৃপ্ত দুপুর, বর্ষার এই ম-িত ছন্দ, শরতের কাশফুলের দোলা, হেমন্তে রাতের হিম, শীতের কুয়াশা ঘেরা প্রকৃতির রহস্যময়তা, বসন্তের ফুল, পাখিদের কলরবে মুখরিত জীবন মনে করিয়ে দেয় আমরা কেউ স্বায়ম্ভু নই। বহু প্রাচীন কাল থেকে আমরা এগিয়ে চলি প্রকৃতির রূপরস, গন্ধ সুধা আহরণে। আমরা এই আদি পৃথিবীর সন্তান। চির অনুসন্ধানী সৌন্দর্য পিপাসু মানুষেরা পিটিসির স্থাপনাসমূহের নির্মাণশৈলী ও প্রকৃতির অফুরান সবুজ আঙ্গিনার ছায়া তলে খুঁজে ফিরে নিসর্গের কোমল ছায়ায়। নব উদ্যমে নব চেতনায় এগিয়ে চলে মানব জীবন। স্বপ্ন যাত্রার হাতছানি দেয় প্রতিনিয়ত সাফল্য চূড়ার সন্ধানে।

এই নিসর্গময়তার আচলে বেধেছি এই জীবন আমার!

এই অপরুপ ছায়ার মায়ার

কাটিয়ে মুগ্ধ ¯স্নিগ্ধ

এই একান্ত প্রহর আমার,

আমি ভেসে যাব একদিন

স্বপ্নডানা মেলে

দিগন্তরেখা পেরিয়ে,

অনন্তের পথে অন্য ভুবনে

অনিবার্য অসীমের ডাকে!!

  লেখক : যুগ্ম-কমিশনার (ট্রান্সপোর্ট) ডিএমপি, ঢাকা

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *