ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ঠিক চার মাস পেরিয়ে এসেছি আমরা। প্রযুক্তির কল্যাণে সারা দেশের তো বটেই, গোটা পৃথিবীর অভিজ্ঞতা আমাদের সামনে প্রতি মুহূর্তে উঠে আসছে। নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে মানুষ উপলব্ধি করছে যে, কোভিড-১৯ এমন একটি অসুখ তার বিরুদ্ধে কারও একার লড়াই যথেষ্ট নয়। করোনার বিরুদ্ধে যোদ্ধা আসলে সবাই। করোনা এমন এক অসুখ, যেখানে পাশের মানুষটির স্বাস্থ্যবিধি মান্য করা বা না-করার উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে। প্রথম লক্ষ্য হচ্ছে, মহামারীর ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো। সংক্রমণ সাফল্যের সঙ্গে ঠেকাতে পারলেই সবচেয়ে বড় কাজটি করা হবে।

বাংলাদেশ পুলিশ সর্ব প্রথমেই সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে সেই লড়াইয়ে জীবন বাজী রেখে এগিয়ে এসেছে। রোগ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে নিয়েছে লকডাউন, সোশ্যাল ডিসটেন্স নিশ্চিত করেন, কোয়ারেন্টাইন কার্যকর করাসহ নানা পদক্ষেপ। জ্বর নিয়ে রাস্তায় পড়ে থাকা যুবককে যখন কেউ ছুঁয়ে দেখছে না, সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের  পাশে যখন কেউ ফিরেও তাকাচ্ছে না, এমনকি করোনা সংকটে কৃষক যখন ধান কাটতে পারছে না তখন পুলিশ সদস্যরা তাদের প্রতি বাড়িয়ে দিয়েছে সহযোগীতার হাত। ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছে বাজার, রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়াসহ প্রয়োজনে দাফন কাফন সবই করছে।

সম্মানিত আইজিপি মহোদয় করোনা সংক্রমনের শুরুতেই শক্ত হাতে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দিয়ে পুলিশ বাহিনীকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে উৎসাহ জুগিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, আমরা জানি ফ্রন্ট লাইনার যোদ্ধা হিসেবে বাংলাদেশে পুলিশে আক্রান্তের হার অধিক হলেও করোনায় মৃত্যুর হার মাত্র ০.৫ ভাগ। জাতীয় পর্যায়ে এ হার ১.৩ ভাগ। আইজিপি মহোদয় বলেন, করোনা সংক্রমণ কিভাবে শূণ্যের কোঠায় নামিয়ে আনা যায় সে লক্ষে আমরা কাজ করছি। তিনি সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আমরা সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে এ দূর্যোগ মোকাবেলা করতে পারবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গঠিত একটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদল দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল পরিদর্শন করে করোনা চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় পুলিশ হাসপাতালকেই শ্রেয় বলে আখ্যায়িত করেছেন। চীনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দলও করোনা চিকিৎসায় কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসা প্রটেকল ও ব্যবস্থাপনায় ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

আমরা জানি, পুলিশ সদস্যদের মধ্যে করোনায় আক্রান্তের হার থেকে সুস্থতার হার বেশি। এরই মধ্যে শত শত পুলিশ সদস্য করোনাযুদ্ধে জয়ী হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন। অনেকেই কাজে যোগ দেয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। করোনাযুদ্ধে জয়ীদের আমরা জানাই টুপি খোলা অভিবাদন।

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *