ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

পরিবেশ মানুষের পরম বন্ধু। পরিবেশ মানুষকে মমতা দিয়ে আগলে রাখে। পরিবেশকে আশ্রয় করেই গড়ে উঠেছে মানবসভ্যতা। কিন্তু দুঃখের সঙ্গে বলতে হয় যতোই দিন যাচ্ছে ততই প্রকৃতি তার নিজস্বতা হারাচ্ছে। আমরা বেপরোয়াভাবে পরিবেশ দূষণ করে চলেছি। আমরা ডেকে আনছি ক্ষয় ও অবক্ষয়ের মহামারি। কি বায়ু দূষণ, কি পানি দূষণ, কি শব্দ দূষণ, মাটি দূষণ, বৃক্ষনিধন ইত্যকার কর্মকা-ের ফলে মানব সভ্যতা আজ হুমকিতে পড়েছে। বন উজাড়ের ফলে খরার সৃষ্টি হচ্ছে। পশুপাখি তার আবাসস্থল হারাচ্ছে। পশুপাখি বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। ফলে পরিবেশ প্রতিনিয়ত ভারসাম্য হারাচ্ছে। পানি দূষণের ফলে জলাশয়ে আজ আর আগের মতো মাছ নেই। জলজপ্রাণীরাও হুমকির মুখে। যানবাহনের বিকট শব্দে রোজ কোটি কোটি মানুষ উচ্চরক্তচাপ, মাথাব্যথা, হার্টের সমস্যায় ভূগছে। নির্বিচারে বালি উত্তোলন, পাথর উত্তোলন, কয়লা উত্তোলন ও পাহাড় কাটার ফলে ভূমিকম্পের মাত্রা বেড়ে যাচ্ছে। সুনামি হাত বাড়িয়ে ডাকছে।

বিশ শতকের মাঝামাঝি থেকে শুরু হয়েছে পারমাণবিক যুগ। কাঠ, কয়লা এবং তেল দহনের ফলে পরিবেশ যে পরিমাণে দূষিত হয় পারমাণবিক দহনের দূষণের পরিমাণ তার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি। পরীক্ষামূলকভাবে পারমাণবিক বোমার বিস্ফোরণ, প্রচ- শক্তিশালী রকেটের সাহায্যে মহাকাশে অভিযান ও উপগ্রহ উক্ষেপণে বিপুল পরিমাণ বিষাক্ত গ্যাস বায়ুম-লে ছড়িয়ে পড়ে। এর ফলে পরিবেশ দূষিত হয়। শিল্পায়ন এবং নগরায়নের জেরে গোটা বিশ্বজুড়েই পরিবেশের দফারফা। বিশ্ব উষ্ণায়ণ ঘুম ছুটিয়েছে পরিবেশ বিজ্ঞানীদের। যে ভাবে পৃথিবীর উষ্ণতা বাড়ছে, ভূগর্ভে সঞ্চিত জল ও জ্বালানি তলানিতে এসে ঠেকেছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতে মানব সভ্যতার সামনে যে বিশাল সংকট এসে উপস্থিত হবে তাতে কোনও সন্দেহ নেই।

জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত মানুষ পরিবেশের ওপর নির্ভরশীল। কিন্তু আমাদের স্বেচ্ছাচারিতার ফলে দিনদিন নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। পরিবেশের দূষণের ফলে আবহাওয়া বিরূপ হয়ে পড়েছে, দেখা দিচ্ছে নানা ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ মানবজাতিকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই পরিবেশকে দূষণের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে। আর এজন্য দরকার কার্যকর পদক্ষেপ। তাই আসুন পরিবেশ বাঁচাই, নিজে বাঁচি। পরিবেশ রক্ষার দায়িত্ব আমাদের সবার ওপরেই বর্তায়।

বিশ্বব্যাপী সচেতনতা এবং পরিবেশ রক্ষার জন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ৫ জুন পালিত হয়েছে বিশ্ব পরিবেশ দিবস। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো ‘প্রকৃতির জন্য সময়’। বিভিন্ন সংগঠন করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এ বছর অনলাইনে দিবসটি পালন করছে। ১৯৭৩ সালে প্রথম উদযাপিত হওয়ার পর থেকে এটি এখন বিশ্বের প্রায় শতাধিক দেশে বহুল স্বীকৃত একটি দিবসে পরিণত হয়েছে।

পৃথিবী ও প্রকৃতি রক্ষার গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করতে প্রতি বছর ৫ জুন ভিন্ন ভিন্ন প্রতিপাদ্য নিয়ে এ দিবসটি পালিত হয়।

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *