ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

ধর্মের দোহাই দিয়ে হেফাজতের ভাঙচুর,

ছাড় নয়- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ধর্মের দোহাই দিয়ে হেফাজত ভাঙচুর করেছে। তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

৭ মে ২০২১ খ্রি. দুপুরে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে হেফাজত নেতাদের তা-ব ও সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত স্থান পরিদর্শন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এ সময় হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত রাজানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি একেএম আলমগীর কবিরের বাড়ি পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় মন্ত্রী বলেন: আমি নিজে এসে দেখে গেলাম; আমি আপনাদের সঙ্গে ওয়াদা করছি যারা এ সহিংসতার সঙ্গে জড়িত তাদের সবাইকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসব। আমাদের প্রধানমন্ত্রী দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছেন। তিনি নিজেও একজন মুসলমান, তিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন, সময়মতো তাহাজ্জুদ পড়েন, কোরআন পড়েন। তার হাতে বাংলাদেশ; তিনি কোরআন-সুন্নাহর বাহিরে কিছু করেন না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান আরও বলেন, যারা ধর্মের নামে অরাজকতা করে তাদের হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করতে হবে। হেফাজত ধর্মের দোহাই দিয়ে ভাংচুর করছে। তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। হামলাকারী প্রত্যেকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। এই শান্তির ধর্মকে কলুষিত করেছে হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মীরা। সহিংসতা ও নাশকতা ইসলামের কাজ নয়। সহিংসতা ও নাশকতার সাথে

যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা

নেওয়া হবে।

উল্লেখ্যগত ২৮ মার্চ হরতালের সময় হেফাজত সহিংসতা ও নাশকতা চালিয়েছে। এ ঘটনায় সিরাজদিখান থানায় ১০টি মামলা হয়েছে।

এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) ও অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

  ডিটেকটিভ রিপোর্ট

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

0 Comments

Leave a Reply

Avatar placeholder

Your email address will not be published. Required fields are marked *