ই-পেপার

SITE UNDER CONSTRUCTION
বাংলাদেশ পুলিশের মুখপত্র
অব্যাহত প্রকাশনার ৬৩ বছর

রহস্য রাত

ইরানী বিশ্বাস যথাসময়ে থানায় এসে কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ে সাজ্জাদ। তবে কাজের ফাঁকে মনের কোনে উঁকি দেয় সন্দেহের ধূম্র। কাল রাতের ঘটনাটা কিছুতেই মন থেকে সরিয়ে রাখতে পারছে না সাজ্জাদ। হঠাৎ মনে পড়ে যায়, ‘কি নাম ছিল ওই এলাকার?’ মনে মনে বিরক্ত হয়। কাল ঘুরে আসলাম আর আজই মনে করতে

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

রহস্য রাত (পর্ব ১)

ইরানী বিশ্বাস কে? কে ওখানে? প্রশ্ন করতেই ঝোপের মধ্যে মিলিয় গেল ছায়াশরীর।সাজ্জাদ একটু চিন্তিত হয়ে পড়ে।এই ঝড়-জলের রাতে কে ওখানে? আর কি-ই বা করছে? সন্ধ্যা রাত থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে। মাঝে মাঝে দমকা হাওায়াও বইছে।অতি প্রয়োজনেও মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না।আকাশ যেন নীচে নেমে এসেছে। প্রত্যন্ত এলাকার নতুন একটি

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা-শেষ পর্ব

ইরানী বিশ্বাস মেহেরিন ঘুমিয়ে পড়ে। সুমন আস্তে উঠে ডাইনিং থেকে পানি খেয়ে ড্রইং রুমে সোফায় গিয়ে বসে। মেয়েটির সঙ্গে দেখা হওয়া, তার সঙ্গে কথা বলা কোনো কিছুই যেন চোখ থেকে সরিয়ে রাখতে পারছে না। মনের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হচ্ছে। এই মেয়েটি,  একটা ছেলেকে খুন করেছে? কিভাবে সম্ভব? মেয়েটির চোখে এত

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা-পর্ব-১০

ইরানী বিশ্বাস ভেতরের ক্ষত ঢাকতে শরীরে জড়িয়েছিল দামি শাড়ি। মুখে ভারী মেকাপ করেছে। আই স্যাডো, মাসকারা, ঠোঁটে ডার্ক কালারের লিপিস্টিক যা সাধারণত নাইমার পছন্দ নয়। কিন্তু আজ কেন যেন খুব সাজতে ইচ্ছে করছে। বেছে বেছে ভারী গয়না পরেছে। মানুষ পৃথিবীতে দুই রকমের। কেউ দুঃখ পেলে অন্যের কাছে দুঃখি প্রকাশ করে।

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা

ইরানী বিশ্বাস পর্ব-০৯ এসপি স্যার গভীর মনোযোগ দিয়ে ভাবছেন। এমন সময় সেখানে আসে মারুফ এবং অপর এক এসআই। সামনে এসে সম্মান দেখিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে কিছুক্ষণ। এসপি স্যার তখনো চিন্তামগ্ন। মারুফ নিজের উপস্থিতি জানান দিতে আস্তে করে বলেন, – স্যার.. – হুউ.., দুজনের মুখের দিকে তাকিয়ে চোখের ইশারায় বসতে বলেন। ওরা

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা

ইরানী বিশ্বাস ০৩ কথা শেষ করে চলে যায় রুমের মধ্যে। নাইমা কি করবে কিছুই বুঝতে পারে না। সোফায় বসে কাঁদতে থাকে। রুমে গিয়ে ফ্রেশ হয়ে নিজে রুমে লাইট অফ করে ঘুমিয়ে পড়ে। সে রাতে আর নাইমার খবর নেয়নি রাকিব। অনেকক্ষণ পর নাইমা দেখতে পেল রুমে কোন সাড়া শব্দ নেই। তখন

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা

 ইরানী বিশ্বাস ০২ রাকিবের চোখ তখনো ল্যাপট্যাবের স্ক্রিণে ঘুরছে। লোটাস খুব বিরক্ত হয়ে বসে আছে। হয়তো মনে মনে ভাবছে, আমার মতো এত সুন্দরী এক তরুণী বসে আছে। অথচ এই পুরুষ মানুষের কোন চেঞ্জ নেই! তাহলে কি মানুষটি একটু আলাদা, হু হতেও পারে। এই ধরণের সাত-পাঁচ ভাবতে থাকে লোটাস। সামনে থাকা

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

বিষ পেয়ালা

ইরানী বিশ্বাস ০১ দেশে হঠাৎ করে খুনের ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে। আজ সকালেও একটি ঘটনা নজরে আসে সুমনের। পরকিয়ার জেরে স্ত্রীকে খুন করেছে। যথাযথ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। লাশ পোস্টমর্টেম করে সুরতহাল রিপোর্ট নিয়ে থানায় মামলা হয়েছে। আসামীকে এখনো গ্রেফতার করা যায়নি। গুম, মার্ডার, আত্মহত্যা, মারামারি, জোর-দখল এ ঘটনা নিত্যদিনের। অনেকটা গা-সহা

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

প্রতারক প্রেমিকা (শেষ পর্ব)

ইরানী বিশ্বাস কিছুটা বোকামি মিশ্রিত স্বরে বলে, –           ম্যাডাম আমি। ভেতরে আসবো? –           তুমি ! কে তুমি ? বুয়া.. বুয়া..। মোহিনী কিছুটা ভয় পেয়ে যায়। বুয়া ছুটে আসে ভেতরে। তখনো পর্দার আড়ালে দাঁড়িয়ে রয়েছে পাচু। বুয়াকে দেখে বিচলিত হয়ে ওঠে মহিনী। তারপর অভিযোগের সুরে বলে, – কোথায় ছিলে তুমি? –

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)

প্রতারক প্রেমিকা (পর্ব – ০৬)

ইরানী বিশ্বাস গেট খুলে এক পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছে পাচু। কালো গাড়িটি সাই করে গেট টপকে ভেতরে প্রবেশ করে। পাচু গেট বন্ধ করে দাঁড়িয়ে আছে। মনে মনে সিদ্ধান্ত নেয়, খাবার শেষ করতে সাদেক আলীর রুমে প্রবেশ করবে, নাকি সদ্য প্রবেশ করা গাড়িটির কাছে গিয়ে দাঁড়াবে। ভাবতে ভাবতে গাড়ির দরজা খুলে বেরিয়ে

ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন :)